সরকারী স্কুল শিক্ষকরা টিউশনি করলে যাবে চাকরি , সোমবার থেকে থেকে শুরু হচ্ছে রেইড 
 
private tution strictly prohibited by govt teachers tripura edu minister ratan lal nath says


private tution strictly prohibited by govt teachers tripura edu minister ratan lal nath says : ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ জানিয়েছেন তাদের কাছে খবর রয়েছে বেশ কিছু শিক্ষক বেআইনি ভাবে প্রাইভেট টিউশনি করছেন  । এটা অত্যন্ত অন্যায় বলে জানিয়েছেন  । এবিষয়ে তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে জারি হওয়া সার্কুলার তুলে ধরে বলেছেন এটা বেআইনি । 

শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল জানিয়েছেন যেহেতু সরকারী সার্কুলার বলছে কোন সরকারী শিক্ষক প্রাইভেট টিউশন করেন তাদের পক্ষে সম্পুর্ন এনার্জি দিয়ে স্কুলে পড়ানো সম্ভব নয় । এবিষয়ে তিনি সর্বশেষ  ত্রিপুরা হাইকোর্টের কথা উল্লেখ করে বলেছেন ২০১৫ সালে হাইকোর্ট একটি অর্ডারে বলা হয়েছে সরকারী স্কুলের   কেউই প্রাইভেট টিউশন করতে পারবে না । এক্ষেত্রে যারা কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে পরাচ্ছেন তারাও প্রাইভেট টিউশন করতে পারবেন না । তিনি শিক্ষার অধিকার আইনের কথা উল্লেখ করে বলেন প্রাইভেট স্কুলের শিক্ষকরাও ১৪ বছরের নিচের শিশুদের টিউশন করতে পারবেন না । এবং নিজের স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের পড়াতে পারবে না । 


তিনি এবিষয়ে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং এর কথা উল্লেখ করে বলেন কিছু ক্ষেত্রে সরকারী স্কুলের শিক্ষকরা একদমই সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই টিউশন করে চলেছেন । তার ফলে তাঁরা এমনিতেই করোনার বিরুদ্ধে যে আইন জারি হয়েছে তা মানছেন না । তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্যের সকল শিক্ষক শিক্ষিকাদের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সোমবার থেকে রেইড শুরু হবে । ভালো চান তো এই টিউশন পড়ানোর চ্যাপটার বন্ধ করুন । হাইকোর্টের আদেশ তিনি মানতে বাধ্য । এবং যেহেতু এর বিরুদ্ধে সরকারী আইন  রয়েছে তাই পরবর্তী সময়ে কিন্তু চাকরি খোয়াতে হবে ।

 কোনভাবেই প্রাইভেট টিউশনকে গ্রহনযোগ্য নয় । এই বিষয় টি মাথায় রাখতে হবে । এবিষয়ে যদি আপনার  ভালো না লাগে আপনি যেতে পারেন সেক্ষেত্রে চাকরি ছেড়ে দিয়ে আপনি প্রাইভেট টিউশন করতে পারেন । কিন্তু চাকরি রেখে কোনমতেই প্রাইভেট টিউশন করতে পারবেন না । 

পশ্চিমবঙ্গেও সরকারী শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন পড়ানো বেআইনি । তারপরেও কিছু শিক্ষক সরকারী আইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে দেদার টিউশন পড়িয়ে চলেছেন । এবিষয়ে প্রায়শই খবরের কাগজে শিরোনাম হয়ে উঠে আসে বিভিন্ন শিক্ষকের নাম ।  

এবিষয়ে উল্লেখ্য পশ্চিমবঙ্গে সরকারী স্কুল শিক্ষকদের টিউশন বন্ধে একটি বেসরকারি সংগঠন ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইভেট টিউটর ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশান নামে একটি বেসরকারি সংগঠন অগ্রনি ভুমিকা নিয়েছে । প্রায়শই তাঁরা ব্যাক্তিগত উদ্যোগে সরকারী শিক্ষকদের ডেরায় গিয়ে হাজির হয় এবং সকলের সামনে যেসকল সরকারী শিক্ষক বেআইনিভাবে প্রাইভেট টিউশন করে থাকেন তাদের পর্দাফাস করে থাকেন । 


ত্রিপুরার শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথের ভিডিওটি দেখুন


2 Comments

আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

  1. অত্যান্ত গুরুত্তপূর্ণ পদক্ষেপ। শিক্ষকরা যদি স্কুলে ছাত্রদের নিজের সন্তানের মত যত্ন করে পড়ায় তাহলে ছাত্রদের প্রাইভেট পড়ার প্রয়োজনই পরবে না। আমি একজন অভিভাবক হিসেবে আশা করব সমাজে এই বেবস্থা চালু হোক। আপনাদের যারা এর পক্ষে কাজ করছেন সকলকে ধন্যবাদ।

    ReplyDelete

Post a comment

আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

Previous Post Next Post