পরিযায়ী শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে বিজেপির তরফে গনডেপুটেশন দেওয়া হল


deputation was given on behalf of BJP to solve the problem of migrant workers

  

deputation was given on behalf of BJP to solve the problem of migrant workers : বর্তমানে রাজ্য তথা দেশের অন্যতম বড় একটি সমস্যা হল পরিযায়ী শ্রমিক । বিভিন্ন রাজ্য থেকে নিজের বাড়ির উদ্দেশ্যে ফিরতে থাকা শ্রমিকদের বেহাল দশা ফুটে উঠেছে । সমালোচিত হয়েছে বিভিন্ন সরকার । আর এই সমালোচনা থেকে বাদ যায়নি পশ্চিমবঙ্গ সরকারও ।

পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানো নিয়ে টানাপোরেনও কম হয়নি । বিজেপি নেতা দিলিপ ঘোষ এবং রাহুল সিনহা বারবার পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানোর ব্যাপারে যথেষ্ট গাফিলতি রয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ।

আর যখন পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরেছেন তারপরও বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন উঠছে । কোথাও অভিযোগ পরিযায়ী শ্রমিকরা ঠিকমত খাবার পাচ্ছেন না , তো কোথাও অভিযোগ তাদের ঠিকমত কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে না । কোথাও কোথাও এমনও অভিযোগ উঠছে তাদের অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রাখা হচ্ছে ।

এই পরিস্থিতিতে দাড়িয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এলো ভারতীয় জনতা পার্টির ধনিয়াখালি মণ্ডল । মত ছয় দফা দাবী নিয়ে তাঁরা ডেপুটেশন দিলেন ধনিয়াখালি ব্লক উন্নয়ন আধিকারিকের অফিসে ।

এই ছয় দফা দাবিগুলি হল –

১. আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের  অবিলম্বে ত্রিপলের ব্যবস্থা করতে হবে ।

২. রেশন কার্ড নেই বা যারা আবেদন করেছিল তাদের রেশনের ব্যবস্থা করতে হবে ।

৩. প্রত্যেক গরীব মানুষের জব কার্ড করে দিতে হবে ।

৪. আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ।

৫. পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ারেন্টিনের যথাযত ব্যবস্থা করতে হবে ।

৬. অবিলম্বে করোনার প্রকোপ থেকে বাঁচতে প্রতিটি গ্রামে স্যানিটাইজেশন করার ব্যবস্থা করতে হবে ।

 

এই ডেপুটেশন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন ধনিয়াখালি মণ্ডলের দুই সভাপতি স্বপন সাঁতরা , আশিস দাস , ধনিয়াখালি বিধানসভা শিক্ষক সেলের ইনচার্জ চিরঞ্জীব মালিক সহ অন্যান্যরা । এইবিষয়ে শিক্ষক সেলের ইনচার্জ চিরঞ্জীব মালিক জানিয়েছেন “পরিযায়ী শ্রমিকরা আমাদের ঘরের ছেলে । ঘরের ছেলে ঘরে ফিরবে এবং কোন সংক্রমণও ছড়াবে না । এই ব্যবস্থা সরকারকে নিতে হবে ।”

এবিষয়ে ধনিখালি মণ্ডলের সভাপতি আশিস দাসকে আজকের কর্মসুচি নিয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেছেন “আমরা ধনিয়াখালি মানুষের সমস্যা নিয়ে এর আগেও অনেকবার এসেছি । আজকের পরও যদি বি.ডি.ও এর তরফ থেকে উপযুক্ত ব্যবস্থা না নেওয়া হয় , তাহলে আমরা পুনরায় এখানে আসব এবং আবারো গনডেপুটেশন দেবো ।”

     


2 Comments

আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

  1. ভুটানের শ্রেমিকদের কি হবে

    ReplyDelete
  2. আমাদের সরকার কোনো কিছু ভাবছে না বুটানের শ্রমিক দের কথা

    ReplyDelete

Post a comment

আপনার মতামত জানাতে কমেন্ট করুন

Previous Post Next Post